ভোলায় সাংবাদিক সাগর চৌধুরী কে হামলা করার সন্ত্রাসি নাবিল হায়দার আটক।।

আইন-আদালত কোরোনা ভাইরাস

বরিশাল প্রতিনিধি :

ভোলায় ডব্লিউ নিউজের সম্পাদক সাগর চৌধরীরকে মোবাইল ছিনতাইয়ের মিথ্যা অপবাদ দিয়ে মারধরে ঘটনার মামলায় বোরহানউদ্দিনের সন্ত্রাসী নাবিল হায়দারকে গ্রেফতার করেছে ভোলা জেলার বোরহানউদ্দিন থানা পুলিশ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, লালমোহন সার্কেল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার।বুধবার (১ এপ্রিল) দুপুরে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এর আগে রাত দুইটায় সাংবাদিক সাগর চৌধুরী অত্র থানায় নাবিলসহ পাঁচজনের নামে মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বোরহানউদ্দিন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এনামুল হক।এর আগে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন-ডিইউজের একাংশ হামলাকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি জানিয়ে মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) বিবৃতি দিয়েছেন। ডিইউজের সভাপতি কাদের গনি চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক মো. শহিদুল ইসলাম। বাংলাদেশ অনলাইন প্রেসক্লাব সহ অন্যান্য সাংবাদিক সংগঠন প্রতিবাদ জানান। এছাড়াও কোটা সংস্কার চাই (বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ) নেতা মুহাম্মদ রাশেদ খাঁন ও ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুরুও এ নিয়ে প্রতিবাদ জানিয়ে আসছে।উল্লেখ্য, ডব্লিউ নিউজের সম্পাদক সাগর চৌধরীর উপর বোরহানউদ্দিন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও বড় মানিকা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন হায়দারের ছোট ছেলে নাবিল রাজমনি সিনেমা হলের সামনে মারধর করে।ঘটনা সম্পর্কে সাগর চৌধুরী জানায়, তাকে নাবিল ফোন করে বাসা থেকে বড়দিন রাজমনি সিনেমার কাছে নিয়ে-ই মারধর শুরু করে। এমনকি নাবিল তার মোবাইল দিয়ে লাইভ করে বলে আমি নাকি তার মোবাইল নিয়েছি। নাবিল একই থানার লোক। তার বাবা ক্ষমতাসীন দলের পোস্টে আছে বলে তারা এলাকায় মানুষকে মানুষ মনে করে না। সাগর জানায়, “ইউনিয়নের জেলেদের ১ মণ করে চাল দেওয়ার কথা, কিন্তু চাল দেওয়া হচ্ছে মাত্র ১৪-১৫ কেজি করে।বিষয়টা আমি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানাই এবং চেয়ারম্যানকে জিগ্যেস করি কেন চাল কম দিচ্ছেন? এজন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বসির গাজি এবিষয়ে চেয়ারম্যানকে জিগ্যেস করে। যেকারণে বোরহানউদ্দিন বড় মানিকা ইউনিয়ন পরিষদের (ভোলা) চেয়ারম্যান জসিমউদ্দিন হায়দারের ছেলে নাবিল হায়দার আজকে আমাকে ডেকে নেয় দেখা করার জন্য।

এরপর ভিপি নুরের হত্যার হুমকির ভিডিও দেখিয়ে বলে, আমি ভিপি নুরকে গুনিনা, আর তুমি তো কোথাকার সাংবাদিক। একথা বলতে বলতে আমাকে প্রচন্ড রকম মারধর করে এবং মোবাইল ছিনতাইকারী হিসেবে অপবাদ দেয়।”

উল্লেখ্য, নাবিল হায়দার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করে, কিছুদিন আগে সে ডাকসু ভিপি নুরকে প্রকাশ্যে হত্যার হুমকি ও তার সহযোদ্ধা শাকিলের উপর অতর্কিত হামলা করে

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.